আজ তুরাগেরতীরে ইজতেমার মাঠে মুসল্লিদের ঢল

By MD MOSTOFA Feb 2, 2024

আজ ইজতেমা উপলক্ষে টঙ্গীর তুরাগতীরে মুসল্লিদের ঢল। আজ শুক্রবার থেকে শুরু বিশ্ব ইজতেমা রাতে হালকা বৃষ্টির পর আজ শুক্রবার সকাল থেকে আকাশ পরিষ্কার। কুয়াশা নেই। শীতও কম। এমন পরিবেশে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে ঢল নেমেছে মুসল্লিদের। আজ শুক্রবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মুসল্লিদের সংখ্যাও বাড়ছে। ধীরে ধীরে ভরে উঠছে ইজতেমার মাঠ।

আগামীকাল শনিবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। ইজতেমায় যোগ দিতে গত বৃহস্পতিবার থেকেই আসতে শুরু করেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মুসল্লিরা। তবে আজ সকাল থেকে মুসল্লিদের ভিড় দেখা গেছে সবচেয়ে বেশি। বেশিরভাগ মুসল্লি চলে আসায় আজ সন্ধ্যার পর থেকেই বয়ান শুরুর কথা জানিয়েছেন ইজতেমা আয়োজকেরা।

ইজতেমা আয়োজকদের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বি খন্দকার মেজবাহ প্রথম আলোকে বলেন,এবার ইজতেমায় আমাদের কয়েক লাখ মুসল্লির সমাগম ঘটবে। এরই মধ্যে মাঠ ভরে গেছে। প্রায় সব মুসল্লি চলে আসায় আজ সন্ধ্যা থেকেই বয়ান শুরু করে দেব আমরা।

তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধের কারণে এবারও বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে আলাদাভাবে। প্রথম পর্বের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশের মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীরা। ২ ফেব্রুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে এ পর্ব। দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা হবে ৩ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি। এ পর্বের নেতৃত্ব দেবেন ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা।

আজ সকাল থেকে ইজতেমা মাঠ ও আশপাশের এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ইজতেমা মাঠে প্রবেশের জন্য আটটি সড়ক ও পাঁচটি ভাসমান সেতু (পন্টুন) রয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মুসল্লিরা ইজতেমায় যোগ দিতে তুরাগতীরে আসছেন। কেউ বাসে, কেউ ট্রাকে, আবার কেউ পিকআপ ভ্যানে চড়ে এসেছেন ইজতেমা মাঠে। সবার হাতেই একাধিক ব্যাগ ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। ভিন্ন ভিন্ন ফটক দিয়ে মাঠে ঢুকে নিজ নিজ খিত্তায় (নির্ধারিত জায়গা) দূরদূরান্ত থেকে অবস্থান নিচ্ছেন মুসল্লিরা।

বেলা১০টার দিকে মাঠে গিয়ে কথা হয় বিভিন্ন এলাকার মুসল্লিদের সঙ্গে। ৫৩ নম্বর খিত্তার মুসল্লি মো. আরাফাত হোসেন বলেন, ‘১৯৯৪ সাল থেকে নিয়মিত ইজতেমায় আসি। প্রতিবারের মতো এবারও সব মুসল্লিদের এক সঙ্গে পেয়ে খুব ভালো লাগছে। আগে না আসলে মাঠে জায়গা পাওয়া যায় না। তাই আমরা ২৫ জনের দল দুই দিন আগে (বৃহস্পতিবার) চলে আসছি।

এবার পুরো ইজতেমা মাঠে শামিয়ানা টানানো হয়েছে। ইজতেমার আয়োজকেরা জানান, চটসংকটের কারণে পুরো মাঠে শামিয়ানা টানানো সম্ভব হয়নি। এ কারণে মুসল্লিদের নিজ দায়িত্বে শামিয়ানা আনতে বলা হয়েছে। কিন্তু অনেক মুসল্লি বিষয়টি না জেনে শামিয়ানা ছাড়াই ইজতেমা মাঠে চলে আসেন। এ কারণে বিপাকে পড়েছেন তাঁরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, ইজতেমা মাঠের বিদেশি মেহমানখানা–সংলগ্ন বয়ানের মঞ্চের সামনের কয়েক একর জায়গায় শুধু শামিয়ানা টানানো হয়েছে। বাকি জায়গায় বাঁশ পুঁতে রাখা আছে। এর মধ্যে কিছু জায়গায় মুসল্লিরা নিজ উদ্যোগে ত্রিপল, প্লাস্টিকের বস্তা, কাগজ বা কাপড় দিয়ে নিজেদের মতো শামিয়ানা টানিয়েছেন।

ইজতেমায় কোনো পক্ষ ঝামেলার চেষ্টা করলে মোকাবিলার জন্য আমরা প্রস্তুত আইজিপি তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধের কারণে এবারও বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে আলাদাভাবে।

ইজতেমায় কোনো পক্ষ ঝামেলার চেষ্টা করলে মোকাবিলার জন্য আমরা প্রস্তুত: আইজিপি রাত থেকেই বাস,ট্রাকে ইজতেমার মাঠে আসছেন মুসল্লিরা পুরো ইজতেমা মাঠ ঘিরে এখন মুসল্লিদের আনাগোনা। মাঠে প্রবেশের জন্য আছে ৮টি সড়ক, ৫টি ভাসমান সেতুসহ মোট ১৩টি প্রবেশপথ। প্রায় প্রতিটি প্রবেশপথেই মুসল্লিদের জটলা। বাস,ট্রাক রাত থেকেই বাস-ট্রাকে ইজতেমার মাঠে আসছেন মুসল্লিরা।

ইজতেমায় মুসল্লিদের যেসব বিষয় মেনে চলতে বলেছে পুলিশ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আগত মুসল্লিদের ইজতেমায় নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা এবং প্রয়োজনে সহযোগিতা নিতে বলা হয়েছে দুই পর্বে গাজীপুরের টঙ্গীতে অনুষ্ঠিত

ইজতেমায় মুসল্লিদের যেসব বিষয় মেনে চলতে বলেছে পুলিশ এবার ইজতেমায় শামিয়ানা আনতে হবে মুসল্লিদের মঞ্চের সামনে কয়েক একর জায়গায় টানানো হয়েছে শামিয়ানা। এর বাইরে পুরো মাঠে শুধু বাঁশ পুঁতে রাখা হয়েছে। এবার ইজতেমায় শামিয়ানা আনতে হবে মুসল্লিদের

তাবলীগ জামাতের দুই পক্ষের মুরব্বিদের নিয়ে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ইজতেমা মাঠ পরিদর্শন করছেন তাবলিগের দুই পক্ষকে নিয়ে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের ইজতেমা মাঠ পরিদর্শন বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন চালানোর ঘোষণা রেলওয়ের বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন চালানোর ঘোষণা রেলওয়ের দিয়াবাড়িতেও ইজতেমার প্রস্তুআজ তুরাগেরতীরে ইজতেমার মাঠে মুসল্লিদের ঢল

By MD MOSTOFA

Permanent address:- vill: Ballavbishu, Post: Bhutchhara, Upazilla: kaunia, District: Rangpur

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *